দক্ষিণ কোরীয়া সরকার গ্যালাক্সি নোট ৭ এ আগুন লাগার ঘটনার তদন্ত করবে
দক্ষিণ কোরীয়া সরকার গ্যালাক্সি নোট ৭ এ আগুন লাগার ঘটনার তদন্ত করবে
আগেই জানা গেছে যে, আমেরিকার ইউএস সিপিএসসি স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৭ এর হ্যান্ডসেটে আগুন লাগার ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছে। এবার দক্ষিণ কোরীয়ার সরকারও এই বিষয়টি তদন্ত করে দেখার আগ্রহ দেখিয়েছে। দেশটির সংবাদ মাধ্যমের একটি প্রতিবেদন আমাদেরকে এমন খবরই জানিয়েছে।

দক্ষিণ কোরীয়া সরকার গ্যালাক্সি নোট ৭ এ আগুন লাগার ঘটনার তদন্ত করবে
দক্ষিণ কোরীয়া সরকার গ্যালাক্সি নোট ৭ এ আগুন লাগার ঘটনার তদন্ত করবে


কোরীয়ার সরকার পরিচালিত প্রতিষ্ঠান কোরীয়া টেস্টিং ল্যাবররেটরী (কেটিএল) এই পরীক্ষার কাজ সম্পাদন করবে। তারা এরই মধ্যে পরীক্ষা করে দেখার জন্যে স্যামসাং এর কাছ থেকে ৫টি সমস্যাপূর্ণ গ্যালাক্সি নোট ৭ ডিভাইস গ্রহণ করেছে।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে যে, তাদের এই পরীক্ষা কেবল মাত্র ব্যাটারীর মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে না। ব্যাটারীর বাইরেও অন্যান্য দিকগুলি সঠিক ভাবে পরীক্ষার করার জন্যে তারা সর্বাধুনিক পরীক্ষা পরিচালনার প্রযুক্তি ব্যবহার করবে যার মধ্যে আছে এক্স-রে এবং কম্পিউটারাইজড টোমোগ্রাফি। আশা করা যাচ্ছে এ সব প্রযুক্তি সমস্যার মূল কারণ খুঁজে বের করতে সক্ষম হবে।

স্যামসাং এর একজন কর্মকর্তা বলেছেন, "আমরা কেটিএল-এর কাছে ফোন (যেগুলিতে আগুন ধরে গিয়েছিল) হস্তান্তর করেছি এবং আমরা সেই পরীক্ষার বিষয়ে তাদেরকে সর্বাত্মক সহায়তা দেব, কিন্তু এখন আমরা শুধু বসে থাকতে আর ফলাফলের জন্যে অপেক্ষা করতে পারি না। সে কারণে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সমস্যাটির প্রকৃত কারণ খুঁজে বের করতে সকল সম্ভাব্য উপায়ে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।"

স্যামসাং এমন কি ইউএস সিপিএসসি ও সংগৃহিত সমস্যাযুক্ত নোট ৭ ডিভাইসও পরীক্ষা করে দেখার কথা ভাবছে বলেও প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়েছে।