আইফোন ৭ তৈরির কাজ শুরু হয়েছে
আইফোন ৭ তৈরির কাজ শুরু হয়েছে
আইফোন ৭ তৈরির কাজ শুরু হয়েছে
আইফোন ৭ তৈরির কাজ শুরু হয়েছে


অ্যাপেল ইতোমধ্যে আইফোন ৭ তৈরির কাজ শুরু করে দিয়েছে। এমনই তথ্য দিচ্ছে নির্ভরযোগ্য টিপস্টার - অ্যাটঅনলিকস। খবর বলছে যে, পেগাট্রনকে প্রথমে এই ডিভাইসটি তৈরির দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল তবে তারা ৫.৫ ইঞ্চি আকারের আইফোন ৭ প্লাস সংযুক্ত করার কাজটি পায়নি।

অ্যাটঅনলিকস এর টুইটে বলা হয়েছে, পেগাট্রন তাদের ফ্যাক্টরীতে ধীরগতিতে হলেও এরই মধ্যে ৪.৭ ইঞ্চি আকারের আইফোন ৭ তৈরির কাজ শুরু করেছে। অবশ্য তাদের ফ্যাক্টরীতে ৫.৫ ইঞ্চি মডেলের আইফোনটি সংযুক্ত করার কাজ হবে না।

আইফোন ৭ অবমুক্ত হতে আরো তিন মাস বাকী । তাই এখনই বৃহৎ আকারে তার উৎপাদন শুরু হলে তাকে একটু তড়িঘড়ি বলেই মনে হবে। অবশ্য গুজবের খবর থেকে জানা গেছে যে, অ্যাপেল শুধুমাত্র ২০১৬ এর জন্যে ৭৮ মিলিয়ন আইফোনের অর্ডার দিয়েছে। এই বিশাল সংখ্যার বিষয়টি বিবেচনায় নিলে তাদের উৎপাদনে যাওয়ার ঘটনাটিকে আর অযৌক্তিক বলার যুক্তি থাকে না।

সে জন্য অ্যাপেল যে এতো তাড়াহুড়ো করে উৎপাদনে যাচ্ছে তাতে আর বিষ্ময় নেই। বিশ্ব বাজারে আইফোনের চাহিদা পড়তির দিকে হলেও আসন্ন এই ডিভাইসগুলি নিয়ে বিশ্বখ্যাত কোম্পানিটির প্রত্যাশা অনেক বেশি। এখন দেখার অপেক্ষা যে, আইফোন ৭ অ্যাপেলের প্রত্যাশা কতোটুকু পুরণ করে।

গ্রাহক ডিভাইসটি থেকে আসলে বিশেষ কী পেতে যাচ্ছে তা বাতাসে উড়ে বেড়ানো নানান গুজব স্পষ্ট করতে ব্যর্থ হয়েছে । আমাদের কাছে আসা খবর অনুযায়ী নতুন আইফোন দেখতে তার পূর্বসূরিদের চেয়ে খুব বেশি ভিন্ন কিছু হবে না। তবে হয়তো ভেতরের যন্ত্রাংশের প্রযুক্তিতে আকর্ষণীয় কোন বৈশিষ্ট্য যুক্ত হতে পারে।

আইফোন ৭ এর বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে একদল বলছে যে, বড় আকারের ডিভাইসটিতে অ্যাপেল প্রথমবারের মতো ডুয়েল-লেন্স ক্যামেরা যুক্ত করবে। অন্যদল বলছে যে, আসলে ঘটনা তা হবে না, কারণ এখনও আলোচিত প্রযুক্তিটি পূর্ণতা পায়নি। আরেকদল বলছে আইফোনের নতুন ডিভাইসে কোন হেডফোন জ্যাক থাকবে না অথচ ফাঁস হওয়া ছবি আমাদেরকে ভিন্ন তথ্য দিচ্ছে। সব মিলিয়ে বরং ধোঁয়াসাই বেশি তৈরি হয়েছে।

যাহোক , এ সব তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষণ করলে একটি কথাই বলা চলে আর তা হলো অ্যাপেল তার আইফোন ৭ অবমুক্ত করার আগ পর্যন্ত এ সম্পর্কে নিশ্চিত করে কিছু বলা হয়তো সম্ভব হবে না।